Dhaka ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ১৭ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




নলডাঙ্গায় বিদ্যুৎপৃষ্টে হাত পাঁ পুড়ে আহত লাইন শ্রমিক

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের ইনচার্জের ভুলে এক লাইন শ্রমিক বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে হাত পাঁ পুড়ে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রুত সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এরপর তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে ক্রমান্বয়ে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওইদিন বিকেলে ঢাকায় নেয়া হয়।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,শনিবার (১জুন) দুপুরে সাদুল্লাপুর পল্লী বিদ্যুৎ সাবজোনের আওতাভুক্ত নলডাঙ্গা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ইনচার্জ সেলিম রেজা তার লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম কে সঙ্গে নিয়ে উপজেলার মহিষবান্ধি দক্ষিন পাড়ায় ১১ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতে সংযোগের কাজ করতে যান।

এসময় ইনচার্জ সেলিম রেজা বিদ্যুৎ সংযোগ চালু থাকা অবস্থায় লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম কে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে তুলে দেন। লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম খুঁটিতে উঠার পর ইনচার্জ সেলিমের কাছে লাইন বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি খুঁটির নীচ থেকে বলেন লাইন বন্ধ করা হয়েছেে। তুমি কাজ করো। তার কথা মোতাবেক লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম প্লাস দিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ পাল্টাতেই তিনি বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে বৈদ্যুতিক কাজে নিরাপত্তার জন্য ব্যবহূত বেল্টের সাথে খুঁটিত ঝুলতে থাকেন।

এমতবস্থায় লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম বাঁচান বাঁচান বলে চিৎকার করতে থাকেন। তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন দৌড়াদৌড়ি করে ঘটনাস্থলে এসে বিদ্যুতের খুঁটির সাথে বেল্টে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনার জন্য উপস্থিত নারী পুরুষ ইনচার্জ সেলিম রেজা কে দায়ী করছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সাদুল্লাপুর সাবজোনের ডিজিএম নুরুজ্জামান বলেন, ইতিমধ্যে আমি ঘটনাটি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ লিখিত ভাবে অবগত করেছি। তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিষয়ে ইনচার্জ সেলিম রেজার সাথে অফিসের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।




সুন্দরগঞ্জে দাঁড়িয়ে থাকা বাসে আরেক বাসের ধাক্কা, আহত ৭

x

নলডাঙ্গায় বিদ্যুৎপৃষ্টে হাত পাঁ পুড়ে আহত লাইন শ্রমিক

প্রকাশ: ১২:১১:২২ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩ জুন ২০২৪

গাইবান্ধার সাদুল্লাপুর উপজেলায় পল্লী বিদ্যুতের ইনচার্জের ভুলে এক লাইন শ্রমিক বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে হাত পাঁ পুড়ে অল্পের জন্য প্রাণে রক্ষা পেয়েছেন বলে জানা গেছে।

স্থানীয়রা তাকে মুমূর্ষ অবস্থায় উদ্ধার করে দ্রুত সাদুল্লাপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। এরপর তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। সেখানে ক্রমান্বয়ে তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য ওইদিন বিকেলে ঢাকায় নেয়া হয়।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,শনিবার (১জুন) দুপুরে সাদুল্লাপুর পল্লী বিদ্যুৎ সাবজোনের আওতাভুক্ত নলডাঙ্গা পল্লী বিদ্যুৎ অফিসের ইনচার্জ সেলিম রেজা তার লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম কে সঙ্গে নিয়ে উপজেলার মহিষবান্ধি দক্ষিন পাড়ায় ১১ হাজার ভোল্টের বিদ্যুতে সংযোগের কাজ করতে যান।

এসময় ইনচার্জ সেলিম রেজা বিদ্যুৎ সংযোগ চালু থাকা অবস্থায় লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম কে বৈদ্যুতিক খুঁটিতে তুলে দেন। লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম খুঁটিতে উঠার পর ইনচার্জ সেলিমের কাছে লাইন বন্ধের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি খুঁটির নীচ থেকে বলেন লাইন বন্ধ করা হয়েছেে। তুমি কাজ করো। তার কথা মোতাবেক লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম প্লাস দিয়ে বিদ্যুৎ সংযোগ পাল্টাতেই তিনি বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে বৈদ্যুতিক কাজে নিরাপত্তার জন্য ব্যবহূত বেল্টের সাথে খুঁটিত ঝুলতে থাকেন।

এমতবস্থায় লাইন শ্রমিক নুরুল ইসলাম বাঁচান বাঁচান বলে চিৎকার করতে থাকেন। তার চিৎকারে আশেপাশের লোকজন দৌড়াদৌড়ি করে ঘটনাস্থলে এসে বিদ্যুতের খুঁটির সাথে বেল্টে ঝুলন্ত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে। তবে এ ঘটনার জন্য উপস্থিত নারী পুরুষ ইনচার্জ সেলিম রেজা কে দায়ী করছেন।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পল্লী বিদ্যুৎ সাদুল্লাপুর সাবজোনের ডিজিএম নুরুজ্জামান বলেন, ইতিমধ্যে আমি ঘটনাটি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষ লিখিত ভাবে অবগত করেছি। তবে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এবিষয়ে ইনচার্জ সেলিম রেজার সাথে অফিসের মোবাইল ফোনে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলে ফোনটি বন্ধ পাওয়া যায়।