Dhaka ০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ১৬ জুন ২০২৪, ২ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ




রাতে বাড়ি থেকে বের হলেন,সকালে পাওয়া গেলো গলাকাটা লাশ

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের মাঠের হাট শ্মশান সংলগ্ন চৌকিদারের ঘাট এলাকার ধানক্ষেত থেকে বৃহস্পতিবার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে শ্রীপুর ইউনিয়নের মাঠের হাট শ্মশান সংলগ্ন চৌকিদারের ঘাট এলাকার ধানক্ষেতে একটি গলাকাটা লাশ দেখতে পায় স্থানীয় কয়েক জন লোক।  লাশের বিষয়টি স্থানীয় লোক জন সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থল হতে লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয় সুত্র ও লাশের স্বজনরা জানান, নিহত ব্যাক্তি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের বর্মতত গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে আব্দুল আউয়াল (২৩)।  তিনি মোবাইল ব্যাংকিং ও ফ্লেক্সিলোডের ব্যবসা করতেন।  আব্দুল আউয়াল বুধবার সন্ধ্যায় ইফতার করে বাড়ি থেকে দোকানের উদ্দেশ্যে বের হন। রাতে তিনি আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। রাত থেকেই পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন।  আজ বৃহস্পতিবার সকালে তার লাশ পাওয়া যায়।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুব আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।  ময়না তদন্ডের জন্য লাশ গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে চেস্টা চলছে ।

ট্যাগ :




বামনডাঙ্গায় বুড়িমারী এক্সপ্রেস ট্রেনটি যাত্রা বিরতির দাবিতে মানববন্ধন

x

রাতে বাড়ি থেকে বের হলেন,সকালে পাওয়া গেলো গলাকাটা লাশ

প্রকাশ: ০২:৩৭:০৫ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৪ মার্চ ২০২৪

গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার শ্রীপুর ইউনিয়নের মাঠের হাট শ্মশান সংলগ্ন চৌকিদারের ঘাট এলাকার ধানক্ষেত থেকে বৃহস্পতিবার গলাকাটা লাশ উদ্ধার করেছে সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, বৃহস্পতিবার সকালে শ্রীপুর ইউনিয়নের মাঠের হাট শ্মশান সংলগ্ন চৌকিদারের ঘাট এলাকার ধানক্ষেতে একটি গলাকাটা লাশ দেখতে পায় স্থানীয় কয়েক জন লোক।  লাশের বিষয়টি স্থানীয় লোক জন সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশকে অবহিত করলে পুলিশ ঘটনাস্থল হতে লাশ উদ্ধার করে।

স্থানীয় সুত্র ও লাশের স্বজনরা জানান, নিহত ব্যাক্তি সদর উপজেলার লক্ষ্মীপুর ইউনিয়নের বর্মতত গ্রামের হাফিজার রহমানের ছেলে আব্দুল আউয়াল (২৩)।  তিনি মোবাইল ব্যাংকিং ও ফ্লেক্সিলোডের ব্যবসা করতেন।  আব্দুল আউয়াল বুধবার সন্ধ্যায় ইফতার করে বাড়ি থেকে দোকানের উদ্দেশ্যে বের হন। রাতে তিনি আর বাড়িতে ফিরে আসেনি। রাত থেকেই পরিবারের লোকজন তাকে বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুঁজি করতে থাকেন।  আজ বৃহস্পতিবার সকালে তার লাশ পাওয়া যায়।

সুন্দরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাহবুব আলম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এক যুবকের গলাকাটা লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।  ময়না তদন্ডের জন্য লাশ গাইবান্ধা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। হত্যাকান্ডের রহস্য উদঘাটনে চেস্টা চলছে ।